রবিবার , ২৪ ডিসেম্বর ২০২৩ | ১০ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
  1. অপরাধ
  2. অর্থনীতি
  3. আইন
  4. আন্তর্জাতিক
  5. কৃষি
  6. খেলাধুলা
  7. জাতীয়
  8. জেলা সংবাদ
  9. ধর্ম
  10. পড়া
  11. বাংলাদেশ
  12. মিডিয়া
  13. রাজনীতি
  14. শিক্ষা
  15. সারাদেশে

সারিয়াকান্দি-সোনাতলা আসনে নির্বাচনী প্রচারণায় এগিয়ে লিপি

প্রতিবেদক
সমকাল বার্তা
ডিসেম্বর ২৪, ২০২৩ ৭:৫৭ অপরাহ্ণ

সামিউল ইসলাম সনি, সারিয়াকান্দি (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ বগুড়া- ১ আসনে আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে (সারিয়াকান্দি- সোনাতলা) এলাকার প্রার্থীরা প্রচার – প্রচারণায় সরগরম হয়ে উঠেছে। যদিও বিএনপি সহ অন্য সমমনাদের এক দফা দাবিতে আন্দোলন চললেও এআসনে নির্বাচনী চিত্র একটু ভিন্ন। এআসনে প্রার্থীদের প্রচার-প্রচারণা চলেছে একটু আলদা ভাবে। চাঙ্গা ভাব প্রচার প্রচারণায়।

আওয়ামীলীগ দলীয় প্রার্থী (নৌকা মার্কা) সাহাদারা মান্নান সরকার দলীয় প্রার্থী হওয়ায় অনেকটা ফুরফুরে মেজাজে প্রচার-প্রচারণা চালালেও স্বতন্ত্র প্রার্থীরা অনেকটা গা লাগিয়ে প্রচার-প্রচারণা চালাচ্ছেন।

মাঠে প্রচার যুদ্ধে ১০ জন প্রার্থীর মধ্য ৭ জন স্বতন্ত্র প্রার্থীকে দেখা না গেলেও, প্রচার যুদ্ধে এগিয়ে রয়েছেন (তবলা মার্কায়) স্বতন্ত্র প্রার্থী শাহাজাদী আলম লিপি। বলা যায়, ভোটের মাঠে প্রচার যুদ্ধে তিনি সর্বশক্তি নিয়োগ করেছেন। ভোটের মাঠের বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেল ভোটের মাঠে সেই চিত্র । সংসদীয় এলাকার ভোটারদের মুখে শোনা গেল শাহাজাদী আলম লিপির নাম। এর কারণ হিসেবে ভোটারদের কাছ থেকে জানা গেল, তিনি প্রায় ১ বছর আগে থেকে সারিয়াকান্দি -সোনাতলার ভোটের মাঠে রয়েছেন তিনি । শাহাজাদী আলম লিপি সেই থেকে নির্বাচনী এলাকার অলি-গলি, রাস্তাঘাটে, এমনকি গ্রাম, পাড়া, মহল্লায় সভা সমাবেশ করেছে এবং চষে বেড়িছেন তিনি। এছাড়াও তিনি ২ শতাধিক গান – বাজনার বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছেন। গান- বাজনার অনুষ্ঠানে শাহাজাদী আলম লিপি নিজেও গান গেয়েছেন। এর ফলে নবীন ভোটারদের বিরাট একটা অংশ তার কর্মী- সমর্থক হয়েছেন। বগুড়ায় -১ আসনের উদীয়মান, সমাজকর্মী এই মহিলা সংসদ সদস্য প্রার্থী গানের মাধ্যমে ভোট চেয়ে বিভিন্ন সংস্কৃতিমনা ভোটাররা কর্মী – সমর্থক হয়েছেন। এখন তারাও ভোটারদের কাছ থেকে ভোট চাচ্ছেন অহরহ। সারিয়াকান্দি -সোনাতলা এলাকার থ্রি- হুইলার সিএনজি মালিক শ্রমিকদের সাথে, ভোটের মাঠে আসার আগেই একাধিকবার সভা সমাবেশ করেছেন, বিভিন্ন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানও তাদের যানবাহনের পথে- ঘাটে, হাজারও সমস্যা সমাধান করেছে, যখন তখন অনেকটা আগবাড়িয়েই। তিনি এডিশনাল ডিআইজি হামিদুল আলম মিলনের স্ত্রী হওয়ায়, যেকোনো সমস্যা সমাধান করে দিতে বেগ পেতে হয়নি কারো। সংসদীয় আসন ঘুরে জানা গেল, প্রায় দেড় হাজারও বেশি মালিক – শ্রমিক ভোটের মাঠে প্রচার যুদ্ধে শাহাজাদী আলম লিপির (তবলা মার্কা) পক্ষ নিয়েছেন এবং প্রচারণা চালাচ্ছেন । অপর দিকে একটি পত্রিকার প্রকাশক তিনি। এই পত্রিকাতেও শাহজাদী আলম লিপির প্রচার – প্রচারণা চলছে দৈনিক পত্রিকার বিরাট অংশ জুড়ে। এছাড়াও স্থানীয় একটি দৈনিক পত্রিকায় শাহাজাদী আলম লিপির (তবলা মার্কা) প্রচারণা চলছে। এলাকার প্রতিবন্ধীদের হাত করে নিয়েছেন শাহজাদী আলম লিপি অনেক আগেই। তারা নেচে, গেয়ে বিভিন্ন ভাবে ভোট চাচ্ছেন ভোটারদের কাছ থেকে। অন্যদিকে নির্বাচনী এলাকার, স্থানীয় কয়েকজন প্রভাবশালী ইউপি চেয়ারম্যান, আগে চুপচাপ থাকলেও এখন তারা প্রকাশ্যে ভোট চাচ্ছেন শাহজাদী আলম লিপির জন্য। এতে করে,ওই সব চেয়ারম্যানদের কর্মী সমর্থকরাও বসে নেই। এবার তার জন্য প্রচারযুদ্ধে নেমেছেন, বিএনপি’র বেশ কিছু কর্মী সমর্থকরও। তারা চাচ্ছেন, যেভাবেই হোক এবারের দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে শাহাজাদী আলম লিপি সংসদ সদস্য হয়ে জয়ী হয়ে আসুক। এছাড়াও ভোটে না যাওয়া অন্যান্য রাজনীতিক দলের কিছু কর্মী – সমর্থকদের তার জন্য প্রচারযুদ্ধে নেমেছেন। আওয়ামী লীগের মনোনয়ন থেকে ছিটকে পরা আরেক স্বতন্ত্র প্রার্থী কে এস এম মোস্তাফিজার রহমান শ্যামল ( ঈগলপাখি মার্কা) প্রচার-প্রচারণা চালাচ্ছেন। ভোটের মাঠে।। অপরদিকে বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও বগুড়া ৪ তারকা হোটেলের মালিক বীর মুক্তিযোদ্ধা শোকরানা মাঠে প্রচার প্রচারণা চালাচ্ছেন ব্যাপকহারে। বিশেষ করে গত ২৩শে ডিসেম্বর ৪ শতাধিক মোটরসাইকেল শোভাযাত্রা। প্রতিটি গাড়িতেই ছিল (কেটলি মার্কা) প্রতীক। বীর মুক্তিযোদ্ধা শোকরানার ব্যাপক প্রচার হয়েছেন ঐদিন ভোটের মাঠে। বগুড়া -১ আসনের এই ভোটের মাঠে মোট ১০ জন প্রার্থী ভোটের প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তার মধ্য ইয়াসির রহমতউল্লাহ ইন্তাজ (ট্রাক মার্কা), জাতীয় পার্টির গোলাম মোস্তফা বাবু (লাঙ্গল), তৃণমূল বিএনপি’র এন এম আবু জিহাদ (সোনালী আশঁ), বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন নজরুল ইসলাম (বটগাছ), তরিকত ফেডারেশনের আনোয়ার হোসেন (ফুলের মালা), জাসদের এ্যাডঃ হাসান আফজল হারুন।তবে মাঠে তাদের প্রচার-প্রচারণা মাঠে তেমন চোখে পড়েনি । বগুড়া -১ আসনে আওয়ামী লীগদলীয় প্রার্থী সাহাদারা মান্নান এবার এক বিশাল কর্মী বাহিনীসহ শীত উপেক্ষা করে ভোট চাচ্ছেন, ভোটারদের কাছ থেক। কর্মী বাহিনী সহ প্রার্থী মহিলা প্রার্থী এমপি সাহাদারা মান্নান ভোটের জন্য নাওয়া খাওয়া ছেড়েছেন। উল্লেখ করে যেতে পারে, সংসদীয় এ আসনে এবার ভোট কেন্দ্র রয়েছে, ২২৪ টি আর মোট ভোটার রয়েছেন, ৩ লাখ ৫৫ হাজার ১০৯ জন। নির্বাচনে সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ তৌহিদুর রহমান বলেন, ভোট গ্রহণের লক্ষ্যে এরই মধ্য সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে।

সামিউল ইসলাম সনি/আর/স্বাধীন বড়বাড়ী

সর্বশেষ - অপরাধ

আপনার জন্য নির্বাচিত খবর